জামালপুরে নকল সোনার বার দিয়ে প্রতারনার সময় ৪জনকে আটক করেছে পুলিশ

প্রকাশিত: ৮:১১ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০২০

মোহাম্মদ শাহিন,জামালপুর:
জামালপুরের মাদারগঞ্জে গ্রামের সহজ-সরল মহিলাদেরকে নকল স্বর্ণের রার দেখিয়ে এবং চেতনানাশক ওষুধের মাধ্যমে অজ্ঞান করে স্বর্ণাংকার ছিনিয়ে নেয়া আন্ত:জেলার প্রতারক চক্রের ৩ সদস্য ও এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে রোববার রাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
পুলিশ জানিয়েছেন, মাদারগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় মহিলাদেরকে নানা ভাবে প্রলোভন দেখিয়ে নকল স্বর্ণের বার দিয়ে স্বর্ণাংকার হাতিয়ে নিয়ে আসছিল একটি প্রতারক চক্র। যেসব মহিলারা তাদের প্রতারণার ফাঁদে পা না দেয় তাদেরকে চেতনানাশক ওষুধের মাধমে অজ্ঞান করে স্বর্ণাংকার ছিনিয়ে নিতো । এই ঘটনায় প্রতারণার শিকার এক পরিবার রোববার রাতে মাদারগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ রাতেই উপজেলার বালিজুরী বাজার এলাকা থেকে হাবিবুর রহমান, আব্দুল খালেক ও সুজন শেখ নামের আন্ত:জেলা প্রতারক চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের বাড়ি মেলান্দহ উপজেলার মেঘারবাড়ি ও দুইনংচর গ্রামে। প্রতারকচক্রটি এ পর্যন্ত অভিনব কায়দায় মাদারগঞ্জসহ জেলার বিভিন্নস্থান থেকে অর্ধশতাধিক মহিলার নিকট থেকে কোটি টাকার স্বর্ণাংকার হাতিয়ে নিয়েছে। এই ঘটনায মাদারগঞ্জ থানায় এক স্বর্ণব্যবসায়ীসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
মামলার বাদী গাবের গ্রামের রফিকুল ইসলাম জানান, গত ২৫ই ফেব্রুযারি তার শশুর বাড়ী হতে বাড়ীতে ফেরার পথে তার মা বালিজুড়ী বাজার রিফাত তালুকদার মার্কেটে সংলগ্ন তিন রাস্তা মোড়ে হতে পায়ে হেঁটে গ্রামের বাড়ী গাবের গ্রামের উদ্দেশ্য রওনা দেন । পথিমধ্যে একজন অটো চালক চিৎকার দিয়ে বলতে থাকে চাচি কোথায় যাবেন?আমার মা বলেন গাবের গ্রাম যাবো ওই চালক বলেন আমি গাবেরগ্রাম যাবো ।তার মা চালকের কথায় গাড়ীতে উঠে বসেন । কিছু দুর যাওয়ার পরে একটি নকল স্বর্ণের বার দেখিয়ে প্রতারকরা তার মায়ের কানের দুলসহ গলার স্বর্ণের চেইন হাতিয়ে নেয় ।
চরবওলা গ্রামের আসমা বেগম জানান, পৌর শহর বালিজুড়ী বাজার হতে বাড়ীতে ফেরার পথে ওই চক্রের দুইজন সদস্য তাকে অটোগাড়ীতে যাত্রী হিসাবে তুলে রাস্থার মধ্যে তার নাকে এক ধরনের তরল পদার্থ ধরে কিছুক্ষন সে আর কিছুই বলতে পারেনা । জ্ঞান ফেরার পর তিনি দেখতে পান তার পরিহত অলংকার গুলো নেই ।
মাদারগঞ্জ মডেল থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, রোববার রাতে মাদারগঞ্জের পৌর এলাকায় এক নারী কেনাকাটার জন্য আসেন। কেনাকাটা শেষে বাড়ী ফেরার জন্য তারা শহরের বালিজুড়ী অটোস্ট্যান্ড থেকে অটোরিকশায় উঠেন। এ সময় ওই তিন প্রতারক তাদের কাছে কোনো টাকা-পয়সা নেই জানিয়ে নকল সোনার বারটি আসল বলে সেটা নিয়ে টাকা দিতে বলেন ওই নারীকে। বিষয়টি নিয়ে বাকবিতন্ডতা সৃষ্টি হলে অশেপাশের লোকজন এসে প্রতারক চক্রের তিন সদস্যকে অটক করে পুলিশে খবর দেয় । অটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে ।এই চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে গ্রামের সহজ-সরল মহিলাদের যাত্রী হিসাবে অটোগাড়ীতে তুলে তাদের সর্বস্ব লুটে নেয় । এদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে , অন্য সদস্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে ।