জার্নাল ডেস্ক
20 February 2020
  • No Comments

    ময়মনসিংহের গৌরীপুর আফাজ খুনের রহস্য ৩ বছরেও অন্ধকারে !

    মো: আমান উল্লাহ আকন্দ :
    ময়মনসিংহের গৌরীপুরে কৃষক আফাজ উদ্দিন(৬৫) হত্যাকান্ডের তিন বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটন করতে পারেনি সংশ্লিষ্ট তদন্ত কর্মকর্তারা। ঘটনার পর থেকে সংশ্লিষ্ট থানা-ডিবি, সিআইডি ও পিবিআই পুলিশের দফায় দফায় তদন্তেও আলোচিত এ হত্যাকান্ডের রহস্যের অন্ধকার এখনো কাটছে না। এনিয়ে ভূক্তভোগী বাদী পরিবার ও সচেতন মহলে ক্ষোভ ও হতাশার সৃষ্টি হয়েছে।
    মামলার বাদী মোছা: এমিলি খাতুনের অভিযোগ, আমার পিতা আফাজ উদ্দিন হত্যাকান্ডের আগে ও পরে যে সকল ব্যক্তি ঘটনার রহস্যময় সংস্পর্শে ছিল এমন সন্দেভাজন ৩ ব্যক্তিকে সিআইডি ও পিবিআই পৃথক ভাবে আটক করে। কিন্তু সংশ্লিষ্টরা অবৈধ ভাবে লাভবান হয়ে ওই সন্দেহভাজনদের মামলায় সম্পৃক্ত না করে ছেড়ে দিয়েছে। বিষয়টি ইতিমধ্যে লিখিত ভাবে রেঞ্জ ডিআইজি,পুলিশ সুপার ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপারকে জানানো হয়েছে।
    বাদী এমিলি খাতুন দাবি করেন, ঘটনার রহস্যময় সংস্পর্শে থাকা ওই সকল সন্দেহভাজনদের গ্রেফতার করে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে আমার পিতা হত্যাকান্ডের মূলরহস্য বেরিয়ে আসবে বলে বিশ্বাস করি। ধরা পড়বে প্রকৃত খুনিরা। তাই পিতাহারা একজন এতিম অসহায় সন্তান হিসেবে বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সদয় দৃষ্টি আকর্ষন করছি।
    জানা যায়, ২০১৭ সালের ২১ জানুয়ারী গভীর রাতে অজ্ঞত ব্যক্তিরা কৃষক আফাজ উদ্দিনকে গলা কেটে নির্মম ভাবে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আলামতসহ লাশ উদ্ধার করলে ওই দিনই গৌরীপুর থানায় নিহতের মেয়ে এমিলি খাতুন বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
    বাদী সূত্র আরো জানায়, ঘটনার পর গৌরীপুর থানা ও ডিবি পুলিশ তদন্ত করলেও কিছুদিন পর ঘটনার রহস্য উদঘাটনে বিজ্ঞ আদালত সিআইডি পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দেন। কিন্তু র্দীঘ সময় তদন্ত করেও রহস্য উদঘাটনে ব্যর্থ হয়ে সিআইডি পুলিশ এ হত্যা মামলার একটি অসম্পুর্ন চার্জসীট প্রদান করে। এ ঘটনায় বিজ্ঞ আদালতে নারাজি আপত্তি দাখিল করলে মামলাটি পুন:তদন্তের দ্বায়িত্ব পায় পিবিআই পুলিশ। বর্তমানে আলোচিত এ হত্য মামলাটি পিবিআই পুলিশ তদন্ত করছেন।
    এবিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো: জাহাঙ্গীর হোসেন খান বলেন, আফাজ হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটনে আমরা আন্তরিকতার সাথে কাজ করছি। কারণ পিবিআই পুলিশ যে কোন তদন্ত কার্যক্রমকে অন্ধকার মারিয়ে আলোর পথে নিয়ে আসতে বদ্ধপরিকর। তবে এখন পর্যন্ত আফাজ হত্যা মামলার মূল রহস্য উদঘাটন সম্ভব হয়নি।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *