জার্নাল ডেস্ক
3 October 2021
  • No Comments

    ঈশ্বরগঞ্জ আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মিলন, বিরোধী পক্ষে অসন্তোষ


    ময়মনসিংহ :
    ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক পদে দ্বায়িত্ব পেয়েছেন কার্যকরী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট হাবিবুল্লাহ মিলন। এনিয়ে ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় বিরোধী পক্ষের মাঝে ক্ষোভ অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে। যা ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।  

    উপজেলা আওয়ামী লীগ সূত্র জানায়, প্রায় এক বছর আগে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক বর্ষিয়ান রাজনীতিক আব্দুল হাকিম হঠাৎ স্টোক করে মৃত্যুবরণ করেন। সেই থেকে এই পদটি শূন্য ছিল। কিন্তু সামনে উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন। এতে দাপ্তরিক কাজকর্ম রয়েছে।  

    বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে গতকাল শনিবার (২ অক্টোবর) রাতে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মো: জহিরুল হক খোকা ও সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে অ্যাডভোকেট হাবিবুল্লাহ মিলন ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক (চলতি) পদে দ্বায়িত্ব প্রদান করেন।  

    এ খবর উপজেলা আওয়ামীলীগে প্রকাশ হলে স্থানীয় একটি পক্ষ হাবিবুল্লাহ মিলন ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তবে স্থানীয় বিরোধী পক্ষের সমর্থকরা বিষয়টি নীতিমালা বর্হিভূত দাবি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ ছড়াচ্ছেন।      

    বিরোধী পক্ষের দাবি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভা না করে যুগ্ম সাধারন সম্পাদকদের বাদ দিয়ে রেজুলেশন ছাড়াই কার্যকরী কমিটির সদস্যকে ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক করা অনৈতিক নিয়ম বর্হিভূত কাজ।  

    তবে সদ্য দ্বায়িত্বপপ্রাপ্ত অ্যাডভোকেট হাবিবুল্লাহ মিলন বলেন, সংগঠনের স্বার্থে উপজেলা ও জেলা আওয়ামী লীগের র্শীষ নেতাদের সমন্বয়ে আমাকে ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক পদে চলতি দ্বায়িত্ব দেয়া হয়েছে। দ্বায়িত্ব পালনে আমি দলের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সহযোগীতা কামনা করছি। আর যারা প্রপাগান্ডা ছড়াচ্ছে তারা দলের বহিস্কৃত। এনিয়ে আমার ভাবনা নেই।    

    এবিষয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম বুলবুল বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের তিন জন যুগ্ম সাধারন সম্পাদকের মধ্যে জয়নাল আবেদিন এবং বজলুর রহমান বিগত পৌর নির্বাচনে নৌকার বিপক্ষে অবস্থান নেওয়ায় তারা দল থেকে বহিস্কৃত। অপর একজন মারা গেছেন। ফলে দলের স্বার্থেই যোগ্য ব্যক্তিকে দ্বায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এনিয়ে অপপ্রচার করে লাভ নেই। তবে উপজেলা আওয়ামীলীগ জেলার নেতাদের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে।    

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *