জার্নাল ডেস্ক
5 July 2021
  • No Comments

    গফরগাঁওয়ে প্রকাশ্য যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা ।

    মাজহারুল ইসলাম রাজু,গফরগাঁও:

    ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের শিবগঞ্জ বাজার এলাকায় আজ বিকালে প্রকাশ্যে দিবালোকে যুবলীগ নেতা মোহন কে এলোপাথারী কুপিয়ে হাতা-পা কেটে হত্যা করেছে দুর্বত্তরা। রবিবার (৪ জুলাই) বিকাল আনুমানিক ছয়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
    মতিউর রহমান মোহন উপজেলার পাঁচুয়া গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে। সে রাওনা ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা এবং রাওনা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী।

    প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, মতিউর রহমান মোহন সোমবার বিকাল পাঁচটার দিকে বাড়ি থেকে উপজেলার দীঘা গ্রামে শ্বশুর বাড়িতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বের হয় । সাথে ছিল গ্রাম পুলিশ ও চাচাতো ভাই কাঞ্চন মিয়া (৩০) । পথিমধ্যে শিবগঞ্জ বাজারে নেমে তার ৪ বছর বয়সী একমাত্র কন্যা মোহনার জন্য দোকান থেকে জামা-কাপড় ক্রয় করে। বিকাল ছয়টার দিকে মোহন শিবগঞ্জ বাসষ্ট্যান্ডের যাত্রী ছাউনী এলাকায় মোটর সাইকেল উঠে আবার যাত্রা শুরু করার আগ মুহূর্তে দুইজন অপরিচিত দূর্বত্ত এদের মধ্যে একজন মুখোশ পড়া ছিল এসেই মোহনের পথ আটকায় । এবং ধারালো অস্ত্র (রামদা) বের করে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে মোহনকে । এক পর্যায়ে মোহনকে মোটর সাইকেল থেকে নামিয়ে রামদা দিয়ে কোপিয়ে হাত-পা কাটে পরে মাথায় ও পেটে এলাপাথারী কুপিয়ে সন্ত্রাসীরা ।দীঘা গ্রামের দিকে চলে যায় । মোহনের সাথে থাকা গ্রাম পুলিশ কাঞ্চন মিয়া মোহনকে বাঁচাতে চাইলে দুর্বত্তরা কাঞ্চনের গলা কেটে নেওয়ার হুমকি দেই এই ভয়ে গ্রাম পুলিশ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকে পরে গ্রাম পুলিশ কে দুর্বত্তরা লাথি মেরে দুরে সরিয়ে দেয়। এ সময় গফরগাঁও-ভালুকা হাইওয়ে সড়কের শিবগঞ্জ বাজার বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় অসংখ্য মানুষ ও রিক্সা এবং অন্যান্য যানবাহন চলাচল করছিল এবং কিছু সাধারন মানুষও ছিল মোহনকে কেউ বাঁচাতেও এগিয়ে আসেনি। অন্তত ১৫/২০ মিনিট মোহন এভাবে রাস্তায় পড়ে থাকে এ ঘটনার খবর পেয়ে গফরগাঁও থানার ওসি অনুকুল সরকার ঘটনাস্থলে এসে মোহনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথেই মোহনের মৃত্যু হয়। দিন দুপুরে এই ঘটনায় এলাকার মানুষের ভিতরে ভয় ছড়িয়ে পড়েছে। রাওনা ইউনিয়ন আওয়ামী, যুবলীগ , সকল অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা ও মোহনের পরিবারের লোকজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভিড় করেন। তাদের কান্নায় পরিবেশ ভারী হয়ে উঠেছে।
    মোহনের পিতা আব্দুস ছাত্তার (৬০) বুক ফাটা চিৎকার করতে করতে বলছে, আমার ছেলের কোন শক্র ছিল না কিন্ত আমার একমাত্র ছেলেকে কেন পরিকল্পিতভাবে খুন করা হল আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই ।

    গফরগাঁও থানার ওসি অনুকুল সরকার বলেন, এ খুনের ঘটনায় বিভিন্ন বিষয় তদন্ত করে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *