চাঁদাবাজির মামলায় দুই বছরের কারাদন্ড অধ্যক্ষের

প্রকাশিত: ৭:৪৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১

সাইমুম সাব্বির শোভন,জামালপুর:

জামালপুরে চাঁদাবাজির মামলায় এক অধ্যক্ষকে দুই বছরের সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। এছাড়াও তাকে ১ লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ৬মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের রায় দেন আদালত
সাজা পাওয়া মোফাজ্জল হোসেন জামালপুর সদর উপজেলার ঘোড়াধাপ ইউনিয়নের ঝাওলা গোপালপুর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ।
আজ বুধবার দুপুরে জামালপুরে বিশেষ জজ আদালতের বিচারক জহিরুল কবির এই রায় ঘোষনা করেন।
মামলার বিবরনে জানা যায়, ঝাওলা গোপালপুর কলেজে শিক্ষক পদোন্নতির জন্য অধ্যক্ষ মোফাজ্জল হোসেন ওই কলেজের সহকারী অধ্যাপক এবিএম ফরহাদ হোসেনসহ ৩ শিক্ষকের কাছে ৫০ হাজার টাকা করে ২ লাখ চাঁদা দাবি করে। ১ লাখ টাকা চাঁদা দেওয়ার পরেও পদোন্নতি না করায় ২০০৮ সালে সহকারী অধ্যাপক এবিএম ফরহাদ হোসেন বাদী হয়ে জামালপুর সদর থানায় একটি চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেন।
৮জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহনের পর বিজ্ঞ বিচারক জহিরুল কবির এ রায় ঘোষনা করেছেন।
রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন আনিজীবি এডভোকেট জাহিদ আনোয়ার ও এপিপি নুরুল করিম ছোটন এবং বিবাদী পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন আনোয়ারুল করিম শাহজাহান।
রায় ঘোষনার পর অধ্যক্ষ মোফাজ্জল হোসেনকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।
অধ্যক্ষ মোফাজ্জল হোসেনের বিরুদ্ধে কলেজ ফান্ডের ১২ লাখ ৬২ হাজার ৮’শ ৬৭ টাকা আত্বসাৎ এর আরো একটি মামলা আদালতে বিচারধীন রয়েছে।