পৌর নির্বাচনে আ.লীগ আচরণবিধি লঙ্ঘণ করছে :সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স

প্রকাশিত: ৬:১৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চলতি পৌরসভা নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল প্রতিনিয়ত আচরণবিধি লঙ্ঘণ করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স। তিনি জানান, আগামী ১৬ জানুয়ারী অনুষ্ঠিতব্য দ্বিতীয় দফা পৌরসভার নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল প্রতিনিয়ত আচরণবিধি লঙ্ঘণ করছে। বর্তমান সরকারের অধিনে কোনো নির্বাচনেই অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়নি। এবারের পৌরসভা নির্বাচনেও সরকার দলীয় নেতাকর্মীরা বিএনপির প্রার্থী ও নেতাকর্মীদের প্রচার কাজে বাঁধা প্রদান, হামলা, হুমকি ও ভয়ভীতি দেখিয়ে আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি করেছে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়মনসিংহ জেলা বিএনপির কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় লিখিত বক্তব্যে বিএনপির এই নেতা আরো বলেন, বিগত ১২ বছরে জাতীয় ও স্থানীয় সরকার নির্বাচন কোনটাই সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষভাবে হয়নি। এসব নির্বাচন জাতীয় বা আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য হয়নি। এরপরও গণতন্ত্রের বৃহত্তর স্বার্থে ও আন্দোলনের অংশ হিসেবে বিএনপি চলমান পৌরসভার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, এবারের পৌরসভা নির্বাচনেও ভোটের সুষ্ঠু পরিবেশ নেই।
ময়মনসিংহ ও কিশোরগঞ্জ জেলার বিভিন্ন পৌরসভার নির্বাচনের পরিবেশ পর্যবেক্ষণ করে তিনি বলেন, সবক’টি পৌরসভার নির্বাচনে চাপা ক্ষোভ ও আতঙ্কের পরিবেশ বিরাজমান। ক্ষমতাসীন দল প্রতিনিয়ত আচরণবিধি লঙ্ঘণ করছে। কেন্দুয়ায় মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় প্রার্থীর ওপর হামলা হয়েছে। মুক্তাগাছায় প্রচারণার সময় হামলায় তিনজন আহত হয়েছেন। কুলিয়ারচরে বিএনপি নেতাকর্মীদের এলাকা ছেড়ে যেতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দেয়া হচ্ছে। এসব ব্যাপারে প্রশাসনের কাছে প্রতিকার চেয়েও কোনো ফল পাওয়া যাচ্ছে না। গতকাল ময়মনসিংহের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সাথে সাক্ষাত করে আগামী ১৬ জানুয়ারী অনুষ্ঠিতব্য দ্বিতীয় দফা পৌরসভার নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার দাবি জানিয়ে নির্বাচনে সকল প্রার্থী ও দলকে সমান সুযোগ প্রদান, ভোটারদের নির্বিঘেœ ভোট প্রদান নিশ্চিতকরণ, বিএনপির পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করার সুযোগ দেয়াসহ নির্বাচনী প্রচারকাজে বাঁধা প্রদান ও হামলাকারি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের প্রেফতার ও দৃষ্টান্তমুলক বিচার এবং কঠোরভাবে নির্বাচনী সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিক করার দাবি জানান।
সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক ডা. মাহবুবুর রহমান লিটন, যুগ্ম আহ্বায়ক জাকির হোসেন বাবলু, মহানগর আহবায়ক অধ্যাপক একেএম শফিকুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক আবু ওয়াহাব আকন্দ, অধ্যাপক শেখ আমজাদ আলী, অ্যাড. এমএ হান্নান খান, একেএম মাহবুবুল আলম, শামীম আজাদ, উত্তর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মোতাহার হোসেন তালুকদার, যুবদলের জেলা সভাপতি রোকনুজ্জামান সরকার রোকন, মহানগর যুবদলের সাধারন সম্পাদক জোবায়েদ হোসেন শাকিল, শ্রমিকদলের জেলা সভাপতি আবু সাঈদ, সাধারন সম্পাদক মফিদুল ইসলাম মোহন, দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক দাঈদ রায়হানসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেবৃবৃন্দ। এদিকে বিএিনপি নেতৃবৃন্দ এসব বিষয় অবগত করে জেলা প্রশাসক, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও পুলিশ সুপারের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেন।