সরিষাবাড়ীতে দুই মুক্তিযোদ্ধা লাঞ্ছিত

প্রকাশিত: ৬:০২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৪, ২০২০

সোলায়মন হরেক,সরিষাবাড়ি:

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে অটোরিক্স সাথে ভ্যানগাড়ীর সংর্ঘষকে কেন্দ্র করে দুই মুক্তিযোদ্ধাকে লাঞ্ছিত করেছে জামিনে মুক্ত হত্যা মামলার আসামী সুমন মিয়া।

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ কার্যালয় চত্বর সড়কে এ ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে সুমন মিয়াকে গ্রেফতারে অভিযান চালায়।

জানা যায়, সরিষাবাড়ী উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে মঙ্গলবার দুপুরে কাজ শেষে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সমাজ সেবা অধিদপ্তরের সাবেক উপ-পরিচালক লুৎফর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মনির হোসেন ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোস্তাক আহম্মেদ। এ তিনজন একটি ভ্যানগাড়ী যোগে আরামনগর বাজার এলাকায় যাওয়ার সময় পথিমধ্যে সামনে থেকে আসা একটি অটোরিক্সা সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে তারা তিনজনই ছিটকে পড়ে যায়। এ সময় ব্যবসায়ী মোস্তাক আহম্মেদ অটোরিক্স্রার চালককে সাবধানে গাড়ী চালাতে ধমকাধমকি করে। এতে অটোরিক্সায় বসে থাকা যাত্রী সুমন মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে মোস্তাক আহম্মেদকে মারধর শুরু করলে দুই মুক্তি যোদ্ধা বাধা দিলে তাদের উপর চড়াও হয়ে শারিরিক ভাবে লাঞ্ছিত করে। এ সময় আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে কিলার সুমন পালিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে সুমন মিয়াকে গ্রেফতারে অভিযান চালায়। উপজেলা পরিষদ চত্বর সাতপোয়া গ্রামের কুটু মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া। প্রায় ৫বছর আগে টাকা না দেয়ায় ইতালী প্রবাসী ফুফুকে কুপিয়ে হত্যা করেছিল এই সুমন মিয়া। জামিনে মুক্ত হয়ে এলাকায় ফের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে সুমন মিয়া।

বীর মুক্তিযোদ্ধা লুৎফর রহমান জানান, সুমন মিয়া একজন সন্ত্রাসী,খুনী অটোরিক্সার চালকের সাথে কথা কাটাকাটি সময় সুমন মিয়া এসে আমাদের উপর চড়াও হয়ে শারিরিক ভাবে লাঞ্ছিত করেছে।

এস আই আরিফুল ইসলাম জানান, সুমন মিয়া হত্যা মামলার আসামী। দুই মুক্তিযোদ্ধা ও ব্যবসায়ীকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় গ্রেফতারি অভিযান আব্যাহত রয়েছে।