ময়মনসিংহে স্বামীর ৫৪ লক্ষ টাকা নিয়ে স্ত্রী উধাও, শাশুড়ী গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৭:৪৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৪, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ময়মনসিংহে অভিনব কায়দায় প্রতারণার মাধ্যমে নগরীর এক বিশিষ্ট ব্যবসায়ীর ৫৪
লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে চম্পট দিয়েছে স্ত্রী শিউলী আক্তার। এনিয়ে তোলপাড়
সৃষ্টি হয়েছে নগরজুড়ে।
জানাযায়, ভুক্তভোগী স্বামীর নাম আলহাজ্ব আব্দুল হালিম। তিনি ময়মনসিংহের
ঐহিত্যবাহী হালিম এন্টারপ্রাইজের স্বত্ত্বাধিকারী।
ভুক্তভোগীর স্বজনরা জানায়, অভিনব কায়দায় স্ত্রী শিউলী আক্তারের প্রতারনার
শিকার হয়েছেন আলহাজ্ব মো: আব্দুল হালিম। স্বামীর সরলতার সুযোগে নিজের
নামে ১৩ লাখ টাকা ব্যায়ে চার শতাংশ জমি ক্রয়, স্ত্রীর দুই বোনের বিবাহ
বাবদ ১৯ লাখ, জমি বন্ধক ও পিতার জন্য ইজি বাইক ক্রয় বাবদ ৩ লাখ ৭০ হাজার
টাকা এবং নানা আজুহাতে আরো ৭ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। একই ভাবে প্রতারণার
মাধ্যমে ২০১৮ সালের ১১ আগষ্ট ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়ার নামে ১২ লাখ টাকা
হাতিয়ে নিয়ে চম্পট দিয়েছেন স্ত্রী শিউলী আক্তার।
ভুক্তভোগী স্বামী আলহাজ্ব আব্দুল হালিম জানান, গত ১৬ জুন শশুড় বাড়ীতে
স্ত্রীর খোঁজ করতে গেলে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে স্ত্রী ও তার স্বজনরা আমাকে
খুন করার উদ্দেশ্যে হামলা চালিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে।
তারাকান্দা থানা পুলিশ সূত্র জানায়, চলতি বছরের গত ১৬ জুন স্বামীকে
কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় গত ২৩ জুলাই তারাকান্দা থানায় স্বামী আব্দুল হালিম
বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় স্ত্রী শিউলী আক্তার, জামেলা
খাতুন, নয়ন মিয়া, নূরজাহান ও নূর হোসেনকে আসামী করা হয়।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে তারাকান্দা থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান,
মামলার প্রাথমিক তদন্ত শেষে গত পহেলা আগষ্ট মামলার আসামী নূর হোসেন ওরফে
নূরু মিয়াকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেফতারের
চেষ্টা চলছে।
আলহাজ্ব আব্দুল হালিম আরো দাবি করেন, এসব ঘটনায় মামলা দায়ের করায় প্রতারক
স্ত্রী আমাকে এখন জানে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। শনিবার রাতে (৩ আগষ্ট) এ
বিষয়ে কোতয়ালী মডেল থানায় সাধারন ডায়েরী করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, এর
আগে ময়মনসিংহের বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ১ নং আমলী আদালতে ফৌজদারী
কার্যবিধির ১০৭ ও ১১৭ ধারায় আরো একটি মামলা দায়ের হয়েছে।
এবিষয়ে ময়মনসিংহ কোতয়ালী মডেল থানার এ.এস.আই ফরহাদ জানান, সাধারন ডায়েরী
দায়ের হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।