‘নান্দাইলে প্রধান শিক্ষিকার কান্ড,প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

প্রকাশিত: ৫:২৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০

কিশোরগঞ্জ থেকে প্রকাশিত ‘কালের নতুন সংবাদ’ পত্রিকায় গত ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে প্রকাশিত ‘নান্দাইলে প্রধান শিক্ষিকার কান্ড, ৩ লক্ষাধিক টাকার চারা গাছ কেটে নেয়ার অভিযোগ’ শীর্ষক সংবাদটি আমার দৃষ্টি গোচর হয়েছে। প্রকাশিত সংবাদটি উদ্দ্যেশ্য প্রণোদিত, মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। সমাজে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার লক্ষ্যে এবং নিজ স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে সংবাটি করানো হয়েছে।
প্রকৃত ঘটনা হলো- আমি গত ২৩ এপ্রিল ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে শুভখিলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যোগদানের পর থেকে দেখতে পাই যে বিদ্যালয়টির ৫১.৫০ শতক জমি রয়েছে। এই জমি ১৯৯১ সালে জমিদাতা আব্দুর রহিম দলিলের মাধ্যমে সরকারের অনুকুলে প্রদান করেন। কিন্তু মাত্র ১০ শতক জমিতে ভবন নির্মাণ করার পর অবশিষ্ট ৪১.৫০ শতক জমি আব্দুর রহিম ভোগ দখল করে আসছেন। জমিদাতা অত্র বিদ্যালয়ের একজন পেনশনভোগী। তিনি সহকারী শিক্ষক হিসেবে দীর্ঘদিন বিদ্যালয়ে চাকরি করে আসলেও বিদ্যালয় কতৃপক্ষকে জমি বুঝিয়ে দেননি। যার ফলে বিদ্যালয়ের স্বাভাবিক কার্যক্রম চালাতে অসুবিধার সম্মক্ষিণ হতে হচ্ছে। এজন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সহ অভিভাবকরা আব্দুর রহিমকে একাধিক বার বুঝানোর পরও কোন কাজ হয়নি। তিনি বিদ্যালয়ের জমি দখল করে চাষাবাদ সহ গাছ লাগিয়ে নিজে ভোগ করে আসছেন। করোনাভাইরাসের কারণে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় তিনি শ্রেণিকক্ষের থালা ভেঙে সেখানে ধান-খর রেখে বিদ্যালয়ের পরিবেশ নষ্ট করেছেন। যা এলাকার মানুষ অবগত। বিদ্যালয়ের জমি দখলের বিষয়টি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মতাদের অবহিত করা হলে উনারা স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বার সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সহযোগীতা নেওয়ার পরামর্শ দেন। উনাদের পরামর্শ মোতাবেক স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবগত করলে তিনি চলতি মাসের ১৫ তারিখ বিদ্যালয়ের কক্ষে একটি সভার আয়োজন করেন। সেখানে স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বার, সাবেক মেম্বার, আওয়ামী লীগের দলীয় নেতাকর্মী, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি, অভিভাবক সহ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সকলেই উপস্থিত ছিলেন। সভার সিদ্ধান্ত মতে ১৬ সেপ্টেম্বর জমিদাতা ও তার পরিবারের সকল সদস্যের উপস্থিতিতে সার্ভেয়ার দ্বারা মেপে বিদ্যালয়ের জমি বুঝিয়ে দেওয়া হয়। এর ফলে শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়সহ সরকারী বিদ্যালয় সংরক্ষণ করা হয়।
‘কালের নতুন সংবাদ’ নামে পত্রিকায় আমাকে নিয়ে যে মিথ্যা মানহানিকর ও উদ্দেশ্যমূলক সংবাদ প্রকাশ হয়েছে আমি এর তিব্র ভাষায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। ভবিষ্যতে বিদ্যায়ের ক্ষতি হবে এমন ধরনের সংবাদ প্রকাশ থেকে বিরত থাকর জন্য সংক্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানাচ্ছি।

নিবেদক
(হাসিনা জাহান)
প্রধান শিক্ষক
শুভখিলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়
নান্দাইল, ময়মনসিংহ।