ময়মনসিংহে করোনা চিকিৎসা গবেষনায় পরিকল্পনা পরিদর্শকের সাফল্যে তোলপাড়

প্রকাশিত: ৩:৫১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক:

করোনা চিকিৎসায় দেশ-বিদেশে কার্যকর ঔষধের তালিকায় প্রথম সারীতে স্থান (ivermectin) এর প্রথম স্বপ্নদ্রষ্টা একজন সাধারন পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক মো. দুলাল উদ্দিনের সাফল্যময় গবেষনায় তোলপাঁড় সৃষ্টি হয়েছে ময়মনসিংহের স্বাস্থ্য বিভাগসহ সংশিষ্ট্র প্রশাসনের ভেতরে-বাইরে।গত ১২আগষ্ট করোনা চিকিৎসায় দেশে আইভারমেক্টিনের প্রথম চিন্তাধারক হিসেবে জাতীয় করোনা কমিটির স্বীকৃতি চেয়ে বাংলাদেশ মেডিকেল রির্সাচ কাউন্সিলের পরিচালক বরাবরে লিখিত আবেদন করেছেন এ সফল গবেষক।
তিনি ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ভাংনামারী ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের পরিদর্শক।

পরিদর্শক দুলাল উদ্দিন জানান, করোনা মহামারী শুরুতে আমি বিশ্বের অতীত মহারামারী গুলো নিয়ে গবেষনা করে কলেরা রোগের সাথে করোনার মিল খুজে পাই, যা সহজেই নিরাময় যোগ্য। তখন করোনা ভাইরাসের জিনোম সিকোয়েন্স অধ্যায়ন করে করোনা ভাইরাস পরজীবি জীবনচক্রের সাথে সাদৃশ্য পাই। এরপর বাজারের পরজীবি ঔষধ গুলো গবেষনা করে আইভারমেক্টিনকে কার্যকরী ঔষধ বলে মনে করে চলতি বছরের ২৬ মার্চ আমার ফেইসবুক আইডিকে পোষ্ট করি। যা দেশ-বিদেশে কারোনা চিকিৎসায় আইভারমেক্টিন কার্যকর ঔষধের তালিকার প্রথম সারীতে স্থান পেয়েছে।
গৌরীপুর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো: কামাল হোসেন বলেন, দেশের দূর্যোগে এমন একটি ভালো চিন্তার জন্য আমরা তাকে স্বাগত জানিয়েছি। সবার মাথায় যা আসেনি, দেশের কথা ভেবে তিনি তা নিয়ে চিন্তা করতে পেরেছেন। তাঁর এই উদ্বোবনী চিন্তা উর্ধ্বতন কর্তৃপÿ ভেবে দেখবেন বলে আশা করছি।
দুলাল উদ্দিনের এ গবেষনা ছোট করে দেখার সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন ময়মনসিংহ পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের সাবেক উপ-পরিচালক আবু তাহা মো: এনামুর রহমান। তিনি বলেন, তাঁর এই গবেষনা দেশের দূর্যোগে একটি ভালো চিন্তার উৎকৃষ্ট উদাহরণ।
এবিষয়ে ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক মো: মিজানুর রহমান বলেন, এটি একটি ভালো চিন্তা। কিন্তু এবিষয়ে আমাদের কিছু করার নেই। তবে তিনি লিখিত ভাবে আবেদন করলে বিষয়টি আমরা উর্ধ্বতন কর্তৃপÿের দৃষ্টিতে আনতে চেষ্টা করব।