নেত্রকোনা দূর্গাপুরে বালুবাহী যানবাহন বন্ধ ঘোষণা

প্রকাশিত: ৬:৫৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০২০

মো. কামরুজ্জামান,নেত্রকোনা:

ইজারাদারগণের বেপরোয়া রয়্যালিটি উত্তোলনের কারণে নেত্রকোনা জেলার দূর্গাপুর উপজেলার বালুবাহী যানবাহন যৌথভাবে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পরিবহন সংগঠনের নের্তৃবৃন্দ। ময়মনসিংহ ও নেত্রকোনা জেলার মটরযান কর্মচারী ইউনিয়ন যৌথভাবে বুধবার (১৫জুলাই) থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বালুবাহী ট্রাক-গাড়ি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়ে সংগঠনের ব্যানারে বিজ্ঞপ্তিও প্রচার করা হয়েছে।

দীর্ঘদিন যাবৎ জেলার সীমান্তবর্তী উপজেলা দূর্গাপুরের বালু মহলে ইজারাদারগণ সরকার কর্তৃক নির্ধারিত হারের চেয়ে বেশি রয়্যালিটি উত্তোলন করছে। প্রশাসন কর্তৃক নির্ধারিত তালিকা প্রকাশ না করায় ইজারাদারগণের মনগড়া মূল্য দিয়ে বালু ক্রয় করার কারণে বালুর দাম অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়েছে। যার কারণে এর সাথে সংশ্লিষ্ট নির্মাণশিল্প বালু শ্রমিক, পরিবহন মালিক-শ্রমিকগণ ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। পরিবহন শ্রমিকরা অতিরিক্ত রয়্যালিটি গ্রহণের প্রতিবাদ জানালে বিভিন্নভাবে লাঞ্চিত ও অত্যাচারের সম্মুখিন হচ্ছে। যাকে কেন্দ্র করে পরিবহন মালিক-শ্রমিকগণের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবৎ অসন্তোষ বিরাজ করছে।

এরই প্রেক্ষিতে রবিবার (১২জুলাই) ময়মনসিংহ জেলা মটর মালিক সমিতি, ময়মনসিংহ জেলা মটরযান কর্মচারী ইউনিয়ন, নেত্রকোনা জেলা ট্রাক-কাভার্ডভ্যান-ট্যাংকলরী মালিক সমিতি ও নেত্রকোনা জেলা মটরযান কর্মচারী ইউনিয়নের সিদ্ধান্তক্রমে বুধবার (১৫জুলাই) থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য দূর্গাপুর উপজেলায় বালুবাহী যানবাহন বন্ধ থাকার ঘোষাণা দেন।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, চলতি বছর সীমান্তের সোমেশ্বরী নদীর ১ নং বালু মহালের ইজারামূল্য নির্ধারিত হয় ২৭ কোটি ৫১ লাখ টাকা, ২ নং মহালের ১২ কোটি ৪ লাখ টাকা, ৪ নং মহালের ২ কোটি ৭১ লাখ টাকা ও ৫ নং বালু মহালের ইজারামূল্য ২ কোটি ৪৫ লাখ টাকা নির্ধারিত হয়।

নেত্রকোনা জেলা মটরযান কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আদব আলী বলেন, ইজারাদারগণ সরকার কর্তৃক নির্ধারিত হারে রয়্যালিটি নেয়ার জন্য নেত্রকোনা জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়। কিন্তু জেলা প্রশাসক মহোদয় ১সপ্তাহের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলেও এখনও এর সমাধান হয়নি । যার কারণে রবিবার (১২জুলাই) যৌথভাবে মালিক ও শ্রমিকদের চাপের মুখে বুধবার (১৫জুলাই) থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বালুবাহী যানবাহন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে ময়মসিংহ জেলা মটরযান কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোঃ সানাউর হোসেন সানু বলেন, বালু মহলে ইজারাদারগণ সরকার কর্তৃক নির্ধারিত হারের চেয়ে ১০/১৫ গুন বেশি হারে রয়্যালিটি উত্তোলন করছে। তারই প্রেক্ষিতে ৮জুলাই ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনারের হস্তক্ষেপ কামনা করে আবেদন করি। তারপরও প্রত্যাশিত সমাধান না পাওয়ায় ময়মনসিংহ-নেত্রকোনার ৪টি সংগঠনের নের্তৃবৃন্দের মতামত ও সিদ্ধান্তক্রমে বুধবার (১৫ জুলাই) থেকে নেত্রকোনা জেলার দুর্গাপুর উপজেলায় বালুবাহী ট্রাক-গাড়ী অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সরকার নির্ধারিত রয়্যালিটির তালিকা প্রকাশ ও সেই হারে ইজারাগণ বালুর রয়্যালিটি উত্তোলন না করা পর্য্যন্ত এই আন্দোলন চলবে।