জার্নাল ডেস্ক
30 June 2020
  • No Comments

    তারাকান্দা খাদ্য অফিসের তালিকায় নাম সর্বস্ব রাইচ মিল,চাল দেয় ‘সিন্ডিকেট

    নিজস্ব প্রতিবেদক: ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলা খাদ্য গুদামে সরকারিভাবে চাল সংগ্রহে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। দুর্নীতি ও অনিয়মের আশ্রয় নিয়ে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আসাদুজ্জান বোরো চাল সংগ্রহ করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এ উপজেলায় ১৩ মে হতে শুরু হয়েছে সংগ্রহ অভিযান।
    অত্র উপজেলায় সিদ্ধ চাল ৬হাজার ৬শত ৯মেট্রিক টন,আতপ চাল ৩হাজার ৫শত ২০ মেট্রিক টন সংগ্রহ করা হবে । চালের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে প্রতি কেজি ৩৫ টাকা, যা প্রতি ৩০ কেজি বস্তার মূল্য ১হাজার ৫০ টাকা। ইতোমধ্যে চাল সংগ্রহের জন্য উপজেলার খাদ্য বিভাগের রেজিস্টারকৃত ৩৩টি রাইচ মিলকে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
    সূত্রের দাবি, একটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে দীর্ঘদিন যাবত অযোগ্য এমন রাইস মিলকে সচল দেখিয়ে ওইসব মিলের নামে চাল সংগ্রহ করছেন উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক। ইতোমধ্যে ২২’শ ১৫ মেট্রিকটন চাল খাদ্য গুদামে সংগ্রহ করা হয়েছে।
    গত কয়েকদিন সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, চুক্তিবদ্ধ ৩৩টি রাইস মিলের মধ্যে কয়েকটি মিলের উৎপাদন ক্ষমতা ও অবকাঠামো একেবারে নেই। এসব মিলের বয়লার ভাঙা এবং চাতালে ঘাস উঠেছে। দীর্ঘদিন ধরে উৎপাদন বন্ধ থাকায় এবং ধান সিদ্ধ না করায় চাতালে ঘাস জন্মে গেছে। ধান শুকানোর ঢালাইয়ের স্তর উঠে গেছে। অথচ বছরের পর বছর এসব মিলের নাম দেখিয়ে সিন্ডিকেটের কাছ থেকে চাল নেয় খাদ্য অফিস। আর এ কারণে ভেস্তে যেতে বসেছে সরকারের বিশেষ উদ্দ্যোগ।
    চালকল নির্বাচন নীতিমালা উপেক্ষা করে খাদ্য অফিস আযোগ্য চালকলগুলোর নামে বরাদ্দ দিয়েছে সেগুলি হলো, মেসার্স সেজুতি অটো রাইস মিল , মেসার্স সবুজ দিগন্ত অটো রাইস মিল,ব্রাদ্রার্স অটো রাইস মিল,ভাই ভাই অটো রাইস মিল, বাবুল অটো রাইস মিল,তালুকদার রাইস মিল, । এছাড়া ভাড়া মিলের নামেও বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে। এ সব মিলের মধ্যে জুমিনার ও সিনহা অটো রাইস মিল । সঠিক তদন্ত করলে আরোও অনেক অযোগ্য মিল বেরিয়ে আসবে।
    কথা হয় ভাই ভাই রাইস মিলের মালিক মোখলেছুর রহমান এর সাথে। সরকারি বরাদ্দ কিভাবে পান জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার লাইসেন্স আছে আমি বরাদ্দ পায়। আমার কিছু থাকুক বা না থাকুক ওটা আপনার দেখার বিষয় না। পারলে আমার লাইসেন্স বাতিল করে দেন।
    জানতে চাইলে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আসাদুজ্জান জানান, কিছু মিল রয়েছে যারা বরাদ্ধের জন্য নিবন্ধন করিয়েছে, আমি চাইলে নিবন্ধন বা বরাদ্ধ বাতিল করতে পারিনা।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *