শেরপুরের গারো পাহাড়ে গৃহবধূকে দলবেঁধে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার দুই

প্রকাশিত: ৪:৫০ অপরাহ্ণ, জুন ২৮, ২০২০

শেরপুর প্রতিনিধি: শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার গারো পাহাড়ের উত্তর বাকাকুড়া এলাকায় এক গৃহবধূ (২৭) দলবেঁধে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ঝিনাইগাতী থানার পুলিশ দুই যুবককে আটক করেছে।

আটককৃতরা হলো- উপজলার কাংশা ইউনিয়নের বাকাকুড়া গ্রামের অটো চালক খোকন মিয়া (২২) ও রাসেল মিয়া (২০)। আর ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূর বাড়ি শেরপুর সদর উপজেলার মোবারকপুর গ্রামে। গতকাল শনিবার এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূকে রোববার (২৮ জুন) দুপুরে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বেলা ১২টার দিকে ওই গৃহবধূ তার এক আত্মীয়ের সঙ্গে ঝিনাইগাতী উপজেলার গজনী অবকাশ কেন্দ্রে ভ্রমণে রওনা দেন। তারা একটি ব্যাটারিচারিত অটোরিকশায় যাচ্ছিলেন। অটোরিকশাটি উপজেলার উত্তর বাকাকুড়া এলাকায় পৌঁছলে স্থানীয় কয়েকজন বখাটে যুবক অটোরিকশাটি আটকিয়ে ও গৃহবধূর আত্মীয়কে ভয় দেখিয়ে গৃহবধূকে জোরপূর্বক গারো পাহাড়ের জঙ্গলে নিয়ে যায়। এরপর তিন যুবক উপূর্যপরি তাকে ধর্ষণ করে। এসময় গৃহবধূর ডাক-চিৎকারে ও এলাকাবাসীর নিকট থেকে সংবাদ পেয়ে ঝিনাইগাতী থানার পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে যান এবং খোকন ও রাসেলকে আটক করেন। এ সময় অন্যরা পালিয়ে যায়।

ঘটনার পর পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আমিনুল ইসলামসহ পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

শেরপুরের পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় চারজনের নাম উল্লেখ করে মামলা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকী আসামীদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।