গফরগাঁওয়ে আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় শঙ্কিত একটি পরিবার

প্রকাশিত: ৪:৫৭ অপরাহ্ণ, মে ৩১, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার মশাখালী ইউনিয়নের চৌবাড়িয়া গ্রামে বুধবার প্রতিপক্ষের হামলায় নারী সহ একই পরিবারের পাঁচ জনকে গুরুতর আহত করেছেন একদল দুবৃত্ত । এ ঘটনায় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা হলেও আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় বাদী পক্ষ শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।

জনাগেছে,বাইলনা গ্রামের শিমুল মিয়ার সাথে পূর্বে থেকে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ ও মামলা চলে আসছিল একই এলাকার রিটন মৃধা, রহিম মৃধার পরিবারের । গত ১৯ এপ্রিল থেকে ঈদ এর তৃতীয় দিন বুধবার বিকেলে দ্বিতীয় দফায় রিটন মৃধা ও রহিম মৃধার নেতৃত্বে ১০ থেকে ১২ জন দা,লাঠি, শাবল,লোহার রড ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রের মাধ্যমে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ভুক্তভোগীর পরিবারের নারী-পুরুষসহ ৬ জন ব্যক্তিকে মেরে আহত করে। আহতরা সবাই ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।

এ হামলার ঘটনায় পাগলা থানায় মামলা হলেও গ্রেপ্তার হয়নি কেউ। আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী জুনায়েদ কবির ও তার পরিবার। তারা বলেন, আসামীরা গ্রেফতার না হওয়ায় আমরা জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় আছি। আসামিরা বিভিন্ন রকম হুমকি ধামকি দিচ্ছে।

মামলার বাদী শিমুল মিয়া বলেন, গত এপ্রিলের ১২ তারিখ থেকে জমি সংক্রান্ত বিষয়ে একটি মামলা করি আমি তারাও পাল্টা মামলা করেন কিন্তু ঈদের পর বুধবার বিকেল ৪ টার দিকে আমাদের সহ পরিবারের উপর অতর্কিত ভাবে হামলা চালায় এতে নারী-পুরুষসহ আমাদের পরিবারের ৬ জন গুরুতর আহত হয় । পরে তাদেরকে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।থানায় অভিযোগ দিয়েছি পুলিশ এসেছে কিন্তু কাউকে গ্রেপ্তার করেনি আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে হুমকি দিচ্ছে।

বিবাদী রিটন মৃধা ও রহিম মৃধা বলেন,শিমুল মিয়ার পরিবারের সাথে আমাদের জমি সংক্রান্ত মামলা চলছে । আমাদের জায়গাতে আমরা ঘর উঠাবো তারা বাধা দিচ্ছে এবং আমাদের উপর হামলা ও মামলা করে।

এসব বিষয়ে পাগলা থানার ওসি জানান, দুই পক্ষ পাল্টাপাল্টি মামলা করেছে গত বুধবার নাকি তাদের উপর হামলা করেছে সেই অভিযোগ পেয়েছি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। অতি শীঘ্রই আসামিরা গ্রেপ্তার হবে।