দূর্গাপুরে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে করোনা ত্রাণ আত্মস্বাতের অভিযোগ

প্রকাশিত: ৬:১৫ অপরাহ্ণ, মে ১৩, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনা মোকাবেলায় মানবিক সহায়তার আওতায় বরাদ্ধকৃত সরকারী ত্রান আত্মস্বাতের অভিযোগ উঠেছে নেত্রকোনা জেলার দূর্গাপুর উপজেলার ২নং সদর ইউনিয়নের সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী সদস্য আছমা আক্তারের বিরুদ্ধে। এনিয়ে সংশ্লিষ্ট মহলের ভেতরে-বাইরে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় মানবিক সহায়তার আওতায় ২০১৯-২০ অর্থ বছরের ২৫৯, ২৬৩, ২৫৭ ও ২৬৯ নং ত্রাণ কার্ডে সরকারী চাল বরাদ্ধ হয় সংশ্লিষ্ট ইউপির ৪,৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের উপকারভোগীদের নামে। কিন্তু ইস্যুকৃত ওই কার্ডগুলো সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের নারী সদস্য আছমা আক্তার প্রকৃত উপকারভোগীদের বিতরণ না করে নিজেই আত্মস্বাত করেছেন।
অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় কালিকাপুর গ্রামের মাফিজ উদ্দিনের স্ত্রীর কাছ থেকে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের ভিজিডি কার্ড দেয়ার নামে টাকা আদায় এবং মেনকিফান্দা গ্রামের আব্দুল কাদিরের কাছ থেকে প্রতিবন্ধি কার্ড দেয়ার নামে টাকা দাবির অভিযোগ রয়েছে।
স্থানীয় আব্দুর রশীদ, মো. আল আমিন, শাহ্ আলম ও মো. জালাল উদ্দিন জানান, ওই নারী সদস্য বিধবা ভাতা ও বয়স্ক ভাতার কার্ড দেওয়ার নামে অনেকের কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন। বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যানিকে জানানো হয়েছে।
খবরের সত্যতা স্বীকার করেছেন ইউপি চেয়ারম্যান মো. শাহীনুর আলম সাজু। তিনি বলেন, সরকারী চাল আত্মস্বাতসহ ওই নারী সদস্যের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।
তবে সংশ্লিষ্ট নারী সদস্য আছমা আক্তার দাবি করেন, আমি কারো কাছ থেকে টাকা নেইনি। অভিযোগগুলো বানোয়াট ভিত্তিহীন।